ঈদকে সামনে রেখে সারাদেশ জুড়েই চলছে জমজমাট ঈদ কেনাকাটা। অবশ্য রাস্তায় জ্যাম, শপিং মলে মানুষের প্রচণ্ড ভিড় এগুলার কারণে শপিং একটু কঠিন হয়ে যায় মাঝে মাঝে। তবে চিত্র অনেকটা পাল্টেছে ঘরে বসেই ঝামেলা ছাড়া বাইরের দেশগুলোর মতো আমাদের দেশেও সহজে প্রয়োজনীয় সব কেনাকাটা অনলাইনেই করা যাচ্ছে। এর জনপ্রিয়তাও দিন দিন বাড়ছে।

ঈদ কেনাকাটা

অনলাইন শপিং কোথা থেকে করবেন

আমাদের মাঝে এখন অনেকেই অনলাইন এ কেনাকাটাই প্রাধান্য দেই। তবে এখানে আমাদের মধ্যে একটা কনফিউশন থাকে। কোন সাইট থেকে কেনাকাটা করা যায় কিংবা কোন সাইটগুল ট্রাস্টেড কিংবা প্রোডাক্ট কোয়ালিটিই বা কেমন! তাই আপনাদের জন্য বাংলাদেশের প্রথম সারির কিছু ইকমার্স সাইট এর লিস্ট আমরা তৈরি করেছি, যা অনলাইন কেনাকাটায় আপনাকে সাহায্য করবে।

১. সহজে আর আরামে ঘরে বসে শপিং করার জন্য Ekhanei.com অনেকেরই প্রথম পছন্দ। বেচা-কেনা হরমদ এখানেই ডট কম শ্লোগান নিয়ে শুরু করা এই সাইটটিকে বলা হয় দেশের শীর্ষস্থানীয় অনলাইন ক্লাসিফাইড বিজ্ঞাপনের সাইট।  

২. ফ্যাশন আইটেম থেকে শুরু করে ঘরের প্রয়োজনীয় সবকিছু পাওয়া যায় kaymu.com। নিরাপদে কেনাকাটা করার জন্য ভালো অপশন “কাইমু ডট কম”।

৩. অনলাইন এ বই কিনার কথা ভাবছেন? তাহলে “rokomari.com’কে রাখতে পারেন পছন্দের তালিকায়।

৪. বাংলাদেশি মালিকানায় ই-কমার্স সাইট গুলোর মধ্যে Ajkerdeal.com অন্যতম। এই সাইট থেকে আপনি প্রায় সকল ধরনের পণ্যই কেনাকাটা করতে পারবেন।

৫. জার্মান বেইজড কোম্পানি রকেট ইন্টারনেটের আরেকটি শপিং সাইট “daraz.comঅনলাইনে শপিং- খুব কম সময়ে দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছে এই সাইটটি।

সতর্কতাঃ ঘরে বসেই শপিং আবার ঘরেই পণ্য পেয়ে যাচ্ছেন, তাই কিছু ব্যাপার মাথায় রাখুন। অনালাইনে শপিং-এ সব সাইট তুলনা করে দাম এবং অবশ্যই সবচেয়ে দ্রুততম সময়ে যে পণ্য ডেলিভারি করবে তাদের কাছ থেকে পণ্য কিনুন। টাকা প্রদানের ক্ষেত্রে ক্যাশ অন ডেলিভারি সবচেয়ে ভালো অপশন। এছাড়া অনেক সাইট বিভিন্ন ব্যাংকের কার্ডের মাধ্যমেও পেমেন্ট রিসিভ করে।

ঘরে বসে আয়েস করে অনালাইনে শপিং করাটা এখন বেশ জনপ্রিয় হচ্ছে। তাই এটি সহজ করতে ekhanei.com সহ অন্য অনেক সাইট বিভিন্ন এপস তৈরি করেছে যেন শপিং হয় আরও সহজে। প্লে স্টোরেই পাবেন এই ধরনের এপসগুলো। তাই এখনই আপনার পছন্দের ব্রাইজার অপেরা মিনি দিয়ে ঢুকে পরুন ইন্টারনেটের দুনিয়ায়। আর খুব দ্রুত ব্রাউজিং সাথে কম ডাটা খরচে ইচ্ছামতো করুন অনলাইন শপিং।   

 

ব্লগটি লিখেছেন

সৈয়দ মোহাম্মাদ আবু দারদা    

10411856_10204532508925918_5674909397745896779_n

 

 

Back to top